আর নেতিবাচক খবরের শিরোনাম হতে চান না সাব্বির

নেতিবাচক খবর আর সাব্বির রহমান যেন হাত ধরাধরি করে এগিয়ে চলে। ক্যারিয়ারে ভালো পারফরম্যান্স দিয়ে যতটা আলোচনায় এসেছেন সাব্বির তারচেয়েও ঢের বেশি খবরের শিরোনাম হয়েছেন মাঠের ভেতরে-বাইরের নানা বিতর্কিত কর্মকাণ্ড দিয়ে। তবে জাতীয় দলের বাইরে থাকা এই ব্যাটসম্যানের দাবি, এখন তিনি বেশ পরিণত।

নানা সময়ে অনেক বিতর্কে জড়ালেও আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের সামর্থ্য ও সম্ভাব্য ‘এক্স-ফ্যাক্টর’ বিবেচনায় জাতীয় দলে অনেক দিন ছিলেন সাব্বির। তবে তার সম্ভাবনা বা তাকে নিয়ে প্রত্যাশা বাস্তব রূপ পেয়েছে সামান্যই। বিতর্কের সঙ্গে তার বসবাসও বন্ধ হয়নি কখনো। সব মিলিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই আছেন তিনি জাতীয় দলের বাইরে।

জাতীয় দলের হয়ে সর্বশেষ গত বছর সেপ্টেম্বরে খেলেছেন সাব্বির রহমান। এরপর আর ডাক পাননি। সর্বশেষ বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপেও ভালো করতে পারেননি তিনি। তবে আসন্ন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে ভালো পারফরম্যান্স করে আবার জাতীয় দলে জায়গা করে নিতে চান এই মারকুটে ব্যাটসম্যান।

ভুল থেকে শিখেছেন, এই দাবি তিনি বেশকবারই করেছেন। কার্যক্ষেত্রে প্রমাণ খুব একটা দেখা যায়নি। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের আগে রবিবার তার দল বেক্সিমকো ঢাকার অনুশীলনের ফাঁকে পুরনো সেই কথা আবারো শোনালেন সাব্বির। মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে দাবি করলেন, এখন তিনি বুঝতে পারছেন।

সাব্বির বলেন, ‘আমি এখন পরিণত। গত ৩-৪ বছর যেটা ছিল না, এখন ভুলটা বুঝতে পারছি। ভালো পরিণত মনে হচ্ছে (নিজেকে) এবং মনে হচ্ছে যে কিছুটা শান্তশিষ্ট ও পরিণত হিসেবে কাজ করা উচিত। সবকিছু মিলিয়ে ভালোমতো খেলার চেষ্টা করব।’

জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ার পর গত বিপিএল কিংবা কদিন আগে প্রেসিডেন্ট’স কাপ, কোথাও পারফর্ম করতে পারেননি সাব্বির। নিজের দিনে ম্যাচ জেতাতে পারেন বলেই তবু দল পেতে সমস্যা হয়নি বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে।

তার নিজের জন্য এবং জাতীয় দলের বাইরে থাকা অনেকের জন্য এই টুর্নামেন্টকে সুযোগ বলে মনে করছেন তিনি। সাব্বিরের কথায়, ‘এই টুর্নামেন্টের জন্য আমরা সবাই, সব খেলোয়াড় অপেক্ষা করছিলাম। যারা বিপিএল বা প্রিমিয়ার লিগ খেলি, যারা ফার্স্ট ক্লাস টুর্নামেন্ট খেলি, এ ধরনের টুর্নামেন্ট সবার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পাশাপাশি যারা জাতীয় দলে নাই, ওদের জন্য ফেরার বড় সুযোগ এই টুর্নামেন্ট। আমি চেষ্টা করব ভালো খেলার জন্য, সবসময় বলে আসছি। কষ্ট করছি, কঠোর পরিশ্রম করছি। দেখা যাক, কতটা পারফর্ম করতে পারি।’

এই টুর্নামেন্টের জন্য তার প্রস্তুতি খুব ভালো হয়েছে জানিয়ে সাব্বির বলেন, পরিশ্রমের কোন বিকল্প নেই। অবশ্যই এখন থেকে আরেক লেভেল ভালো খেলতে হবে আমাকে। এখন ঘরোয়া ক্রিকেটে যদি আমি হয়তো ৩০-৪০ বা ৬০-৭০ রানে আউট হয়ে যাই। কিন্তু সেঞ্চুরি করতে পারলে আমার লেভেলটা বাড়বে। সেক্ষেত্রে একটা লেভেল উপরে খেললে আমি নেক্সট টাইম আরো ভালো খেলতে পারবো ইনশাআল্লাহ।’